Banglavision North America

Banglavision North America BanglaVision is the most popular Bengali language TV channel in Bangladesh that offers unbiased & comprehensive news and entertainment Programs.
(6)

Operating as usual

Banglavision North America's cover photo
07/31/2020

Banglavision North America's cover photo

07/22/2020
Banglavision North America

Banglavision North America

উত্তর আমেরিকা বাংলাভিশন সংবাদ | Banglavision North America | 22_July_2020

07/22/2020
Banglavision North America

Banglavision North America

উত্তর আমেরিকা বাংলাভিশন সংবাদ | Banglavision North America | 22_July_2020

Address

70-32 Broadway Jackson Heights
New York, NY
11372

Alerts

Be the first to know and let us send you an email when Banglavision North America posts news and promotions. Your email address will not be used for any other purpose, and you can unsubscribe at any time.

Videos

Nearby media companies


Other Broadcasting & media production in New York

Show All

Comments

শরৎ বাবুর জীবনাদর্শে ডা: মইনউদ্দিন আহমেদ ---------------------------------------------------------------এস আকরাম হোসেন--------------- -------------------------------- গরীব ও ভবঘুরে জীবনে এত বড় একজন লেখক হবেন তা কখনও তিনি কল্পনাও করতে করেননি। কবিগুরু তাই একদিন তাঁকে বলেছিলেন, "শরৎ বাবু, তুমি তোমার জীবনী লেখনা।" কবিগুরু'র কথায় তিনি হেসে উত্তর দিয়েছিলেন, "গুরুজী, আমার জীবনতো আপনার মত এত সুন্দরভাবে সাঁজানো-গোছানো ছিলনা। আর কখনও ভাবিনি, এত বড় লেখক হতে পারব। আগে জানলে, সাবধানে না'হয় জীবনকে তৈরি করতাম।" পাঠকহৃয়দের শিরোমণি, সাধারণ জীবন-যাপনকারি মানুষের জীবনসংসার নিয়ে যিনি আজীবন লিখে গেছেন; তিনি হলেন, অমর কথাশিল্পী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়। যাঁর ডাকনাম ছিল (ছোটবেলায়) ন্যাড়া। তাঁর প্রতিটি উপন্যাসেই জড়িয়ে আছে মেহনতি মানুষের জীবনালেখ্য। জাতি-বর্ণ নির্বিশেষভাবে তিনি সমাজসেবা ও সমাজসংস্কারকের কাজ করে গেছেন। দরদী ও সহমর্মিতার পরশে তিনি তাঁর সৃষ্টিসুখের উল্লাসে মেতেছেন। বাগদী কাহারদের পাড়ায় একবার কলেরা দেখা দিয়েছিল। সে কলেরায় অনেক মানুষ মারা গিয়েছিল। সেখানে কোন চিকিৎসক বা সরকারি মহলের লোক মৃত্যুর ভয়ে যেতে রাজি হননি। কিন্তু মহানুভব লেখক শরৎ বাবু তাঁর বায়োকেমিক ঔষধের বাক্সটি নিয়ে সেখানে যান চিকিৎসক হিসাবে। তিনি বাগদী কাহারদের পাড়ায় গিয়ে কলেরা রোগীদের চিকিৎসা করতে থাকেন। কিছুক্ষণ পরেই তাঁর চাকরটি গিয়ে খবর দেয়, "কলকাতা থেকে কয়েকজন বাবু এসেছেন আপনার সাথে দেখা করতে।" "ও-আচ্ছা, তুই যা আমি আসছি।" বলেই তিনি আবার রোগী দেখতে শুরু করেন। আধ ঘন্টাপর তিনি ফিরে এলেন বাড়িতে। অতিথিরা তাঁর হাতে ঔষধের বাক্স দেখে জিজ্ঞাসু দৃষ্টিতে তাকাতেই শরৎ বাবু বললেন, "তোমরা এসেছো খবর পেয়েই আসতে হল, নইলে আরও কিছু সময় পেলে আরও কিছু রোগীকে শেষ করে আসতে পারতাম।" মানবদরদী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় রসিকতার দিক দিয়েও ছিলেন পরিপূর্ণ। তাঁর হাসি-তামাশা, ব্যঙ্গাত্মক অনেক গল্প আছে। "পথের দাবি" উপন্যাসটিতো বৃটিশ সরকার বাজেয়াপ্ত করে দিয়েছিল। সেসব কিছু লিখতে গেলে অনেককিছু লিখতে হবে। তাই আজকের মর্মন্তুদ ও শোকাবহ ঘটনাটি লেখার জন্যই কথাশিল্পী শরৎ বাবুকে টেনে এনেছি। ডা: মইনউদ্দিন আহমেদ যিনি নিজের জীবন বাঁজী রেখে, সংসার ও পরিজনের কথা না ভেবে-বিশ্বের আতংক করোনা নামের মরনঘাতক করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা করে যাচ্ছিলেন। মরন
--------বাংলাদেশী সকল নিউজ পেপার ও সকল টিভি চেনেল এর সকল সন্মানীত মালিক,কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কে আমার আন্তরিক অভিনন্দন------------
সবাইকে স্বাগতম
dhakay bisbaunty nam e ek companyr durnitir proman ace.amar prosno holo,prosasoniker jodi hath na thake,tahole kivabe tara ai durniti kore???????
বাংলাদেশের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী ও প্রধান শিক্ষক- শিক্ষিকা বন্ধু গণ,আপনাদের সদয় অবগতির জন্য এই মর্মে জানাচ্ছি যে, আমি কিশোরগঞ্জ উপজেলার অফিসার ইনচার্জ কে অবগত করি যে আমাকে উক্ত বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি শাহ মোঃ মুরাদ রুবেল ও তার ভাড়াটে গুন্ডা রবি মিয়া, পিতা লেবু মিয়া, সাং পাগলাপীর, গোকুলপুর - ক্কারীপাড়া, আমাকে অফিস কক্ষে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ও মারধর করে অজ্ঞান করে। ম্যানেজিং কমিটি গঠনের জন্য মাইকিং করাটাই ছিল আমার গুরুতর অপরাধ তাদের কাছে এবং কিছু জায়গায় আমি নোটিশ দিয়েছিলাম নির্বাচন উপলক্ষে। আমি এ বিষয়ে সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার এবং উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও ইউএনও স্যারকে জানালে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ একজন এস আই, নামঃ জাহাঙ্গীর ও তাঁর সঙ্গীয় কনস্টেবলসহ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে হাজির হয়ে আমাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। তারা ইচ্ছাকৃতভাবে অসৎ উদ্দেশ্য সাধনে উক্ত অভিযুক্তদ্বয়কে ছেড়ে দিয়ে আমাকে বলেন যে, আপনার জীবন বাঁচানো আগে দরকার। তাই আপনাকে থানায় নিয়ে যাচ্ছি -আপনার জীবন বাঁচানো জন্য। তিনি তাদেরকে ধরে না গিয়ে, আমাকে থানায় নিয়ে যান। এরপর শুরু হয় কূট-কৌশল। ওসি আমাকে একটি আবেদন লিখতে বলেন এবং এই শর্ত দেন যে, আপনাকে পুলিশ উদ্ধার করে নিয়ে এসেছে তা লেখা যাবে না এবং নির্বাচন কাজে বাধা দিয়েছে তাও লেখা যাবে না। তাহলে আমি আপনার আবেদনপত্র গ্রহণ করবো না। এরপর তিনি আমাকে, তার নির্দেশনা মত একটি দরখাস্ত লিখে নিয়ে এসে স্বাক্ষর করতে বলেন। আমি স্বাক্ষর না করলে তিনি আমাকে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দিতে থাকেন এবং একপর্যায়ে আমি স্বাক্ষর দিতে বাধ্য হই এবং আমাকে দরখাস্ত পড়ে শোনানো হয়নি। তিনি বলেন, আমি এই বিষয়ে মীমাংসা করে দিবো। গত 24/০১/২০২০ তারিখে শুক্রবার তিনি আমাকে মীমাংসা করে দিবেন বলে আমাকে আইনগত ব্যবস্থা নিতে নিবৃত করেন ।এভাবে কালক্ষেপণ করার পর, মীমাংসা না করে দিয়ে জোর করে স্বাক্ষর করানো দরখাস্তে কিছু দূর্বল ধারা উল্লেখ করে আমার অভিযোগটি মামলা আকারে গ্রহণ করে তা আদালতে পাঠিয়ে দেন। সরকারি কাজে বাধাদান, অফিস কক্ষ ভাঙচুর (আনুমানিক ক্ষতি 10 হাজার টাকা) , আমাকে মারধর করা, জোরপূর্বক অফিসকক্ষে দলবদ্ধভাবে মারধর করা, আমার বুক পকেটে থাকা 2150 টাকা ছিনাইয়া লওয়া, প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া ইত্যাদি বিষয়ে কোন ধারা উল্লেখ না করে -কিছু অধর্তব্য ধারা উল্লেখ করেন ( যাতে বিবাদীর কোন প্রকার ক্ষয়ক্ষতি না হয়, এমনকি সহজে জামিন পায়।) সেই ধারাগুলো উল্লেখ করে আদালতে প্রেরণ করেন। এই বিষয়ে আমার সঙ্গে কোনো প্রকার পরামর্শ করেননি। সুতরাং বড় ধরনের টাকা লেনদেন হয়েছে এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। ধারাগুলো আপনাদের অবগতির জন্য উল্লেখ করছি। তিনি আমার সঙ্গে যে, দুর্ব্যবহারগুলো করেছেন তা উল্লেখ করার মতো নয়। বিষয়টি সত্য। ধারা সমূহঃ ১৪৩/৪৪৮/৩২৩/৪২৭/৫০৬(২)/১১৪ দঃ বিধি। এগুলো সবই জামিনযোগ্য ধারা। তার কোন প্রকার আইনগত শাস্তি হওয়ার আশঙ্কা নেই। আপনাদের কাছে আমি এর ন্যায় বিচার দাবি করছি। দয়া করে মতামত দিবেন, আমি কি করলে তার হাত থেকে রক্ষা পাবো? এটাই কি একজন অফিসার ইনচার্জ এর দায়িত্ব? তিনি কি যা ইচ্ছা তাই করতে পারেন ? তার স্বেচ্ছাচারিতা সীমাহীন নয় কি? তিনি কি জনগণের প্রকৃত সেবক ? আমি টাকা দেইনি বলে কি, তিনি আমার উপর এত জুলুম করবেন? তিনি সত্য কাহিনী কে মিথ্যা বানিয়েছেন। তিনি আমাকে হয়রানি করার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি দিয়েছেন। আইনের সেবক হয়ে তিনি কি - যা ইচ্ছা তাই করতে পারেন? আপনাদের কাছে আমি তার বিচারের ভার দিলাম। দয়া করে আমাকে সাহায্য করবেন। আমার বিদ্যালয়ের নামঃমাগুড়া শাহ্পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় । কিশোরগঞ্জ, নীলফামারী। মোবাইল নং ০১৭১৩৬৪৯৯৬৫।
01918522436
গোপালপুর পৌরসভার প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত আজিম নগর স্টেশনে কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস/পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতি চায়, দিতে হব।
মানবতার ডাকে "তামিম" এর পাশে, আনোয়ারা ব্লাড ডোনেট গ্রুপ ৷৷ ------------------------------------------------ আনোয়ারার বৈরাগ গ্রামের আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল পরিবারের ছোট্টশিশু তামিম (১১) দূরারোগ্য কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৮নং ওয়ার্ডের ১০নং বেডে চিকিৎসাধীন আছে৷ ডাক্তারদের ভাষ্যমতে, ওর চিকিৎসায় প্রচুর অর্থের প্রয়োজন৷ আনোয়ারা ব্লাড ডোনেট গ্রুপ তামিমের এই দুঃসময়ে পাশে দাঁড়ালো ৷ তামিমের জন্য গঠিত চিকিৎসা তহবিলে এ পর্যন্ত প্রাপ্ত সহায়তা থেকে ১ম ধাপে (-----) টাকা আজ ওর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হলো৷ এসময় আনোয়ারা ব্লাড ডোনেট গ্রুপের এডমিন নীল জামশেদ , সাইফুল ইসলাম ও ইমতিয়াজ খালেক এবং মডারেটরদের মধ্যে জান্নাতুল মাওয়া, হালিমা খানম, সাহাব উদ্দীন, ইশরাক, ইফতেখার হিরু, আবদুল্লাহ আল মামুন, তারেক ও সোহেল প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন৷ দেশ বিদেশ থেকে যারা অর্থ পাঠিয়েছেন সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাই৷ তামিমের জন্য আমাদের তহবিল সংগ্রহ অব্যাহত আছে৷ আমরা কি পারিনা যতটুকু সম্ভব অসহায় তামিমের পাশে দাঁড়াতে ৷ তামিমের পরিবারের সাথে যোগাযোগঃ ০১৮৪০-৭৪৩৩৫০ >>সাহায্য পাঠাতে — বিকাশ নংঃ ০১৮১৬-৯০৪৮৭৪ ( পার্সোনাল) ০১৮৩১-৪১৪০০০ (পার্সোনাল) আপনার সামর্থে যতটুকু পারেন পাশে দাঁড়ান অসহায় এই শিশুটির৷
Astrology consultation Match making Numerology Vastu & Fengshui Consultation Mobile-91-9323051806(sms or what's app only for consultation)