Clicky

Thikana News

Thikana News Welcome to the official Thikana Newspaper page on Facebook: the most widely circulated Bangla newspaper outside of Bangladesh published in New York for 34 years.

The Bengali Language Movement (i.e. Ekushey February 1952) marked a profound event in Bangladesh history. What began as a mere student protest, led to a historical movement in attempts to acknowledge Bangla as an official language. This movement eventually helped Bangladesh independence through the Bangladesh Liberation War (1971). In order to uphold the significance of the history of Ekushey Febr

The Bengali Language Movement (i.e. Ekushey February 1952) marked a profound event in Bangladesh history. What began as a mere student protest, led to a historical movement in attempts to acknowledge Bangla as an official language. This movement eventually helped Bangladesh independence through the Bangladesh Liberation War (1971). In order to uphold the significance of the history of Ekushey Febr

Operating as usual

12/06/2022

চ্যানেল আই সেরাকণ্ঠ প্রতিযোগিতায় নিউইয়র্কের বাঙালি নতুন প্রজন্ম আলভান চৌধুরী অংশ নেবেন। ৫ ডিসেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের আগ্রহ প্রকাশ করেন তিনি। এরপর খালি গলায় গান গেয়ে শোনান আলভান চৌধুরী।
সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ফেরদৌস আরা উপস্থিত ছিলেন।

নেইমারকে নিয়েই মাঠে নামছে ব্রাজিল -
12/05/2022
নেইমারকে নিয়েই মাঠে নামছে ব্রাজিল -

নেইমারকে নিয়েই মাঠে নামছে ব্রাজিল -

ঠিকানা অনলাইন : গভীর রাতে পেলের ইনস্টাগ্রাম থেকে ‘আমি সুস্থ আছি, বিশ্বকাপে ব্রাজিলের খেলাও দেখছি…’ বার্তা আসার প.....

শাহরিয়ার আলম বলেছেন, ‘নতুন করে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আসবে বলে আমরা মনে করি না। আমরা মার্কিন সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়িয়েছি।...
12/05/2022
‘বাংলাদেশের ওপর নতুন মার্কিন নিষেধাজ্ঞা ন্যায্য হবে না’ -

শাহরিয়ার আলম বলেছেন, ‘নতুন করে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আসবে বলে আমরা মনে করি না। আমরা মার্কিন সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়িয়েছি।’

ঠিকানা অনলাইন : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বলেছেন, বাংলাদেশের কারো বিরুদ্ধে বা কোনো প্রতিষ্ঠানের ওপ...

দুইজ যমজ বোন পিঙ্কি আর রিঙ্কি। দেখতে ও স্বভাবে দুজন পুরোপুরি একে অপরের মতো। দুজনই আবার পেশায় আইটি ইঞ্জিনিয়ার। আবার দুই ব...
12/05/2022
দুই যমজ বোনের এক স্বামী -

দুইজ যমজ বোন পিঙ্কি আর রিঙ্কি। দেখতে ও স্বভাবে দুজন পুরোপুরি একে অপরের মতো। দুজনই আবার পেশায় আইটি ইঞ্জিনিয়ার। আবার দুই বোনই ভালোবাসেন এক যুবককে। শেষে আর নিজেদের মধ্যে ঝামেলায় না গিয়ে দুই জনই অতুল নামের ওই যুবককে বিয়ে করে নিলেন।

ঠিকানা অনলাইন : দুইজ যমজ বোন পিঙ্কি আর রিঙ্কি। দেখতে ও স্বভাবে দুজন পুরোপুরি একে অপরের মতো। দুজনই আবার পেশায় আইটি .....

সাবেক মন্ত্রী গোলাম মোস্তফা আর নেই -
12/04/2022
সাবেক মন্ত্রী গোলাম মোস্তফা আর নেই -

সাবেক মন্ত্রী গোলাম মোস্তফা আর নেই -

ঠিকানা অনলাইন : কুমিল্লা-৪ (দেবিদ্বার) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এবিএম গোলাম মোস্তফা আর নেই (ইন্না লিল....

খালেদা জিয়ার বাসার সামনে পুলিশের চেকপোস্ট -
12/04/2022
খালেদা জিয়ার বাসার সামনে পুলিশের চেকপোস্ট -

খালেদা জিয়ার বাসার সামনে পুলিশের চেকপোস্ট -

ঠিকানা অনলাইন : বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ফিরোজার সামনে পুল.....

নিউইয়র্ক সিটি ট্রানজিট জবে বাংলাদেশি চার ভাই -
12/02/2022
নিউইয়র্ক সিটি ট্রানজিট জবে বাংলাদেশি চার ভাই -

নিউইয়র্ক সিটি ট্রানজিট জবে বাংলাদেশি চার ভাই -

আবু দারদা যোবায়ের : নিউইয়র্ক সিটির যাতায়াতের অন্যতম যোগাযোগ মাধ্যম হল সাবওয়ে (মেট্রোরেল)। বাংলাদেশি একই পরিবারের...

সাহিত্য একাডেমির যুগপূর্তি উৎসব -
12/02/2022
সাহিত্য একাডেমির যুগপূর্তি উৎসব -

সাহিত্য একাডেমির যুগপূর্তি উৎসব -

ঠিকানা রিপোর্ট : সাহিত্য একাডেমি নিউইয়র্ক’র দুই দিনব্যাপী যুগপূর্তি আয়োজন গত ২৫ এবং ২৬ নভেম্বর যথাক্রমে গুলশান ট...

জুন পর্যন্ত বাড়ল স্টুডেন্ট লোন স্থগিতের মেয়াদ -
12/02/2022
জুন পর্যন্ত বাড়ল স্টুডেন্ট লোন স্থগিতের মেয়াদ -

জুন পর্যন্ত বাড়ল স্টুডেন্ট লোন স্থগিতের মেয়াদ -

নাশরাত আর্শিয়ানা চৌধুরী : আগামী বছরের জুন পর্যন্ত বেড়েছে স্টুডেন্ট লোন পজের মেয়াদ। যারা স্টুডেন্ট লোন মওকুফের জন...

বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়াত্ত সোনালী ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ আফজাল করিম কো...
12/02/2022
নিউইয়র্কে সোনালী ব্যাংকের এমডি আফজাল : বাংলাদেশে রিজার্ভ সংকট নেই -

বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়াত্ত সোনালী ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ আফজাল করিম কোনো প্রকার গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, বাংলাদেশে রিজার্ভ নিয়ে কোনো সঙ্কট নেই। তিনি হুন্ডি পরিহার করে বৈধপথে দেশে অর্থ পাঠানোর জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

ঠিকানা রিপোর্ট : বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়াত্ত সোনালী ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এ...

শেফ খলিলুর রহমানের সম্মানজনক ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ড লাভ -
12/02/2022
শেফ খলিলুর রহমানের সম্মানজনক ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ড লাভ -

শেফ খলিলুর রহমানের সম্মানজনক ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ড লাভ -

ঠিকানা রিপোর্ট : নিউইয়র্কে বাংলাদেশি আমেরিকান শেফ খলিলুর রহমান ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ড-২০২২ পেয়েছেন। যুক্তরাজ্...

‘রুশ সেনাদের হাতে বন্দি বহু ইউক্রেনীয় নারী অন্তঃসত্ত্বা’ -
12/01/2022
‘রুশ সেনাদের হাতে বন্দি বহু ইউক্রেনীয় নারী অন্তঃসত্ত্বা’ -

‘রুশ সেনাদের হাতে বন্দি বহু ইউক্রেনীয় নারী অন্তঃসত্ত্বা’ -

ঠিকানা অনলাইন : ইউক্রেন এবার মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছে রাশিয়ার বিরুদ্ধে। রুশ সেনার হাতে বন্দি বহু ইউক্রেন....

পথ হারাল অজানায় -
12/01/2022
পথ হারাল অজানায় -

পথ হারাল অজানায় -

নন্দিনী মুস্তাফী : আমরা পাশাপাশি হেঁটে গিয়েছি কত, কখনো আগুনের রুক্ষ তাপে;কখনো-বা বকুলের ঘ্রাণের মদিরতায়!কখনো মেঠো ...

বিগত কয়েক মাসের বহু জল্পনা-কল্পনা ও আলোচনা-পর্যালোচনার অবসান শেষে আমেরিকার ইতিহাসের সবচাইতে উত্তেজনা ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপ...
12/01/2022
মার্কিন মধ্যবর্তী নির্বাচনে মিশ্র ফলাফলের নেপথ্যে -

বিগত কয়েক মাসের বহু জল্পনা-কল্পনা ও আলোচনা-পর্যালোচনার অবসান শেষে আমেরিকার ইতিহাসের সবচাইতে উত্তেজনা ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ মধ্যবর্তী নির্বাচন গত ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনের আগে ৯দিন ধরে চলে আগাম ভোট পর্ব। প্রাপ্ত তথ্যমতে, আগাম ভোট পর্বে প্রায় ৪৪ মিলিয়ন মার্কিন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এতো বিপুল সংখ্যক ভোটারের ভোটদান এই নির্বাচনকে ঘিরে তাদের মধ্যে সৃষ্ট ব্যাপক উত্তেজনা ও উৎসাহেরই প্রমাণ বহণ করে।

বাহারুল আলম : বিগত কয়েক মাসের বহু জল্পনা-কল্পনা ও আলোচনা-পর্যালোচনার অবসান শেষে আমেরিকার ইতিহাসের সবচাইতে উত্তেজ...

শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন কোনো প্রতিযোগিতার বিষয় নয়, বরং ভালো কাজের মাধ্যমে জনসমর্থনে এগিয়ে থাকাই শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ। ভালো থেকে ...
12/01/2022
মধ্যবর্তী নির্বাচন ও গণবিচক্ষণতা -

শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন কোনো প্রতিযোগিতার বিষয় নয়, বরং ভালো কাজের মাধ্যমে জনসমর্থনে এগিয়ে থাকাই শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ। ভালো থেকে অধিকতর ভালোকে বেছে নেওয়ার উত্তম পদ্ধতি উভয়ের প্রতি জনসমর্থনের তুলনামূলক পার্থক্য। রাষ্ট্র পরিচালনার ক্ষেত্রে সেবক হিসেবে স্বীকৃতি লাভের অন্যতম পদ্ধতি হচ্ছে নির্বাচন। নির্বাচনে বিজয়ী মানে ক্ষমতাসীন হওয়া নয়, বরং দায়িত্বপ্রাপ্তি। তবে নৈতিক অবস্থান থেকে বিজয়কে কে কীভাবে গ্রহণ করে, তার ওপর নির্ভরশীল। একটা সময় ছিল নিজেকে যোগ্য ও প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বিবেচনা ছিল লজ্জা ও অহংকারের বিষয়, সাধারণ মানুষের নিকট যা ভালো বিবেচিত হতো না।

এস এম মোজাম্মেল হক : শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন কোনো প্রতিযোগিতার বিষয় নয়, বরং ভালো কাজের মাধ্যমে জনসমর্থনে এগিয়ে থাকাই শ্র....

ছাত্র জমানায় অর্থনীতি বইয়ের পাতা ওল্টাতে গিয়ে একটা লাইনের ওপর চোখ আটকে যেত প্রায়ই, আর তা হলো ‘ব্যাংক বিশ্বাসের ব্যবসা কর...
12/01/2022
প্রসঙ্গ : বিশ্বাস নিয়ে বিশ্বাসঘাতকতা করা -

ছাত্র জমানায় অর্থনীতি বইয়ের পাতা ওল্টাতে গিয়ে একটা লাইনের ওপর চোখ আটকে যেত প্রায়ই, আর তা হলো ‘ব্যাংক বিশ্বাসের ব্যবসা করে’। মূলত ‘বিশ্বাস’ শব্দটা নিজের কাছে যেন ওজনদার বলে মনে হতো সেই কমবয়সী সময়টাতে। সে জন্য ব্যাংক শুধু বিশ্বাসেই ব্যবসা করে-কথাটা মন কেন যেন মেনে নিতে চাইত না সব সময়। যদিও ব্যাংকের লেনদেনের সঙ্গে জড়িয়ে ছিল লাখ লাখ টাকা থেকে কোটি টাকার হিসাব-নিকাশ।

শামসাদ হুসাম : ছাত্র জমানায় অর্থনীতি বইয়ের পাতা ওল্টাতে গিয়ে একটা লাইনের ওপর চোখ আটকে যেত প্রায়ই, আর তা হলো ‘ব্যাং.....

একসময় মতিঝিলের আদমজী কোর্টে ছিল আমেরিকান দূতাবাস। তখন ভবনটির উপরের তলায় যেতে সিকিউরিটি-সংক্রান্ত অনেক ঝক্কিঝামেলা পোহাতে...
12/01/2022
সৈয়দ আসাদুজ্জামান বাচ্চু ভাই পরলোকে -

একসময় মতিঝিলের আদমজী কোর্টে ছিল আমেরিকান দূতাবাস। তখন ভবনটির উপরের তলায় যেতে সিকিউরিটি-সংক্রান্ত অনেক ঝক্কিঝামেলা পোহাতে হতো। সৈয়দ আসাদুজ্জামান বাচ্চু ভাই তখন ছিলেন ঢাকার মার্কিন তথ্য সার্ভিসের প্রধান সম্পাদক। খন্দকার আব্দুল মান্নান ভাই ছিলেন ডিস্ট্রিবিউশন প্রধান এবং কে এস খাদেম ছিলেন পলিটিক্যাল অ্যাডভাইজর। তাঁদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার খাতিরে দুর্গম ওই ভবনে ছিল আমার অবাধ যাতায়াত!

আকবর হায়দার কিরন : একসময় মতিঝিলের আদমজী কোর্টে ছিল আমেরিকান দূতাবাস। তখন ভবনটির উপরের তলায় যেতে সিকিউরিটি-সংক্রা...

আমি বাংলাদেশে থাকাকালে একবার আমার শ্বশুর-শাশুড়ি দেশে বেড়াতে যান। তখন তারা আমার বাবার বাড়িতেও এসেছিলেন নেমন্তন্ন খেতে। আম...
12/01/2022
তিমির অবগুণ্ঠনে পৃথিবীর মাহসা আমিনিরা -

আমি বাংলাদেশে থাকাকালে একবার আমার শ্বশুর-শাশুড়ি দেশে বেড়াতে যান। তখন তারা আমার বাবার বাড়িতেও এসেছিলেন নেমন্তন্ন খেতে। আমাদের বাড়িতে তখন আমার শহরবাসী কাকা-কাকি এবং আরো অনেক আত্মীয়স্বজনের সমারোহ। আমি অতিথি-আপ্যায়নে ব্যস্ত। হঠাৎ দেখলাম, আমার শাশুড়ি শাহাজান বেগম আমার এক আত্মীয়ার কানে কানে কিছু বলছেন। সঙ্গে সঙ্গে ওই আত্মীয়া আমাকে বললেন, ‘ঝুমু, তোমার শাশুড়ি তোমাকে মাথায় ঘোমটা পরতে বলছেন।’ ভরা মজলিসে ওই কথাটি আমার কানে দোররার মতো শপাং শপাং বাজল। আমার খুশি মন মুহূর্তে বিমর্ষ হয়ে গেল। তবু আমি একান্ত বাধ্য বউয়ের মতো টুপ করে ঘোমটা পরে ফেললাম।

তামান্না ঝুমু : আমি বাংলাদেশে থাকাকালে একবার আমার শ্বশুর-শাশুড়ি দেশে বেড়াতে যান। তখন তারা আমার বাবার বাড়িতেও এসে.....

পথপরিক্রমায় ৫০ বছর (১৯৭২-২০২২) একটি সংগঠনের জন্য সুদীর্ঘ পথ। সেই দীর্ঘ পথ মাড়িয়ে নানা প্রতিকূলতাকে প্রতিহত করে, যুবশক্তি...
12/01/2022
সুবর্ণজয়ন্তীর মাহেন্দ্রক্ষণে ফেঞ্চুগঞ্জ যুবসংঘ -

পথপরিক্রমায় ৫০ বছর (১৯৭২-২০২২) একটি সংগঠনের জন্য সুদীর্ঘ পথ। সেই দীর্ঘ পথ মাড়িয়ে নানা প্রতিকূলতাকে প্রতিহত করে, যুবশক্তিকে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজে লাগিয়ে যে সংগঠন আজ সুবর্ণজয়ন্তীর মুকুট পরতে পেরেছে, তার নাম ‘ফেঞ্চুগঞ্জ যুবসংঘ’। বাংলাদেশের আনাচ-কানাচে সবখানেই দেখতে পাওয়া যায় অগণিত সংগঠন, যা স্বল্প আয়ু নিয়ে বেঁচে থাকে। বড়জোর ৫ থেকে ১০ বছর। তারপর আর তার কোনো অস্তিত্ব পাওয়া যায় না। সারা বাংলাদেশ ঘুরে ৫০ বছরের দীর্ঘায়ু নিয়ে জীবিত রয়েছে, এমন সংগঠন হয়তো হাতে গোনা। সুবর্ণজয়ন্তীর মাহেন্দ্রক্ষণে দাঁড়িয়ে ঐতিহ্যবাহী ফেঞ্চুগঞ্জ যুবসংঘের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, সদস্যসহ সবাইকে আমার অভিনন্দন। আর যারা আমাদের মাঝে নেই, তাদের সবার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

সৈয়দ মামুনুর রশীদ : পথপরিক্রমায় ৫০ বছর (১৯৭২-২০২২) একটি সংগঠনের জন্য সুদীর্ঘ পথ। সেই দীর্ঘ পথ মাড়িয়ে নানা প্রতিকূল.....

বিশ্বকাপে বিশ্বের কাঁপাকাঁপি শুরু হয়ে গেছে। যে যতই বলুন, ফুটবল নিয়ে বিশ্বের যত মাতামাতি, পৃথিবীতে আর কোনো খেলা নিয়ে তত উ...
12/01/2022
বাংলাদেশ কাঁপছে -

বিশ্বকাপে বিশ্বের কাঁপাকাঁপি শুরু হয়ে গেছে। যে যতই বলুন, ফুটবল নিয়ে বিশ্বের যত মাতামাতি, পৃথিবীতে আর কোনো খেলা নিয়ে তত উন্মাদনা দেখা যায় না। সেই ফুটবলের বিশ্বকাপ বলে কথা। বিশ্বে এখন বিশ্বকাপের বাইরে আর কোনো কথা নেই। যেসব দেশের দল বিশ্বকাপে খেলছে, তাদের তো আছেই, যেসব দেশের কোনো দলের অংশ নেই, দর্শক হিসেবে সেসব দেশের মানুষের মাতামাতিও কিছু কম নেই। এ সময়ে আলোচনা-সমালোচনা, তর্ক-বিতর্কÑসবই বিশ্বকাপ ফুটবল নিয়ে। যার যার দেশের প্রতি সে দেশের সমর্থন তো আছেই, তার বাইরে কে ব্রাজিল, আর কে আর্জেন্টিনা, কে জার্মানি, আর কে ইংল্যান্ড-সে নিয়েও ভাগাভাগি কম নয়।

বিশ্বকাপে বিশ্বের কাঁপাকাঁপি শুরু হয়ে গেছে। যে যতই বলুন, ফুটবল নিয়ে বিশ্বের যত মাতামাতি, পৃথিবীতে আর কোনো খেলা নি....

নিউইয়র্কে বাংলাদেশি কমিউনিটিতে ইয়াবার ছোবল দিন দিন বাড়ছে। ঢুকে পড়েছে স্ক্রিস্টাল মেথও। ফলে ঝুঁকিতে রয়েছে নতুন প্রজন্ম। ত...
12/01/2022
দুই ডোজেই জীবন নাশ -

নিউইয়র্কে বাংলাদেশি কমিউনিটিতে ইয়াবার ছোবল দিন দিন বাড়ছে। ঢুকে পড়েছে স্ক্রিস্টাল মেথও। ফলে ঝুঁকিতে রয়েছে নতুন প্রজন্ম। তাদের অনেকেই আসক্ত হয়ে পড়ছেন। সন্তানের মাদক আসক্তিতে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন অভিভাবকেরা। কিন্তু কোনোভাবেই প্রতিকার খুঁজে পাচ্ছেন না তারা। অনেকে চিকিৎসকের কাছে তাদের অসহায়ত্বের কথা বলছেন। কিন্তু সন্তানকে চিকিৎসকের কাছে কোনোভাবেই হাজির করতে পারছেন না।

ঠিকানা রিপোর্ট : শক্তিশালী ও আসক্তি উদ্দীপক মেথামফেটামিন এবং ক্যাফেইনের সংমিশ্রণে তৈরি হয় মরণনেশার উপাদান ইয়াব.....

Photos from Thikana News's post
11/30/2022

Photos from Thikana News's post

সেনেট সমলিঙ্গের ও সমবর্ণের বিয়ে সংক্রান্ত বিল পাস করেছে। ডেমোক্র্যাটরা তো বটেই, ১২ জন রিপাবলিকান সদস্যও বিলের পক্ষে ভোট ...
11/30/2022
যুক্তরাষ্ট্রে সমলিঙ্গের বিয়ে সংক্রান্ত বিল সেনেটে পাস -

সেনেট সমলিঙ্গের ও সমবর্ণের বিয়ে সংক্রান্ত বিল পাস করেছে। ডেমোক্র্যাটরা তো বটেই, ১২ জন রিপাবলিকান সদস্যও বিলের পক্ষে ভোট দিয়েছেন। বিলটি সেনেটে ৬১-৩৬ ভোটে জয়ী হয়েছে।

ঠিকানা অনলাইন : সমলিঙ্গের বিয়ে সংক্রান্ত বিল পাস করলো মার্কিন সেনেট। এখন হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভ তা বিচার করে দে.....

নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত ঠিকানার চলতি সংখ্যা (৩০ নভেম্বর, বুধবার) প্রিন্ট ভিউয়ের খণ্ডচিত্র...
11/30/2022

নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত ঠিকানার চলতি সংখ্যা (৩০ নভেম্বর, বুধবার) প্রিন্ট ভিউয়ের খণ্ডচিত্র...

আলঝেইমার রোগের প্রতিষেধক তৈরির পথে যুগান্তকারী সাফল্য -
11/30/2022
আলঝেইমার রোগের প্রতিষেধক তৈরির পথে যুগান্তকারী সাফল্য -

আলঝেইমার রোগের প্রতিষেধক তৈরির পথে যুগান্তকারী সাফল্য -

ঠিকানা অনলাইন : মানুষের মগজের কার্যক্ষমতা লোপ পাওয়ার রোগ আলঝেইমারের প্রতিষেধক হিসেবে একটি ওষুধ আবিষ্কারের পথে ব....

দেশের সংবিধান ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সেনা সদস্যদের সদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ সেনাপ্রধানের -
11/30/2022
দেশের সংবিধান ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সেনা সদস্যদের সদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ সেনাপ্রধানের -

দেশের সংবিধান ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সেনা সদস্যদের সদা প্রস্তুত থাকার নির্দেশ সেনাপ্রধানের -

ঠিকানা অনলাইন : পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি দেশের সংবিধান ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সেনা সদস্যদের সদা প্রস্তুত থা....

ইরানকে বাড়ি পাঠিয়ে শেষ ষোলোয় যুক্তরাষ্ট্র -
11/30/2022
ইরানকে বাড়ি পাঠিয়ে শেষ ষোলোয় যুক্তরাষ্ট্র -

ইরানকে বাড়ি পাঠিয়ে শেষ ষোলোয় যুক্তরাষ্ট্র -

ঠিকানা অনলাইন : মাত্র একটি ম্যাচ জিতে শেষ ষোলো নিশ্চিত হলো যুক্তরাষ্ট্রের। অবশ্য আগের দুটি ম্যাচে হারের মুখও দেখ.....

১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী -
11/29/2022
১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী -

১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী -

ঠিকানা অনলাইন : সাধারণ রোগীদের মতো দশ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ ২৯ নভেম্.....

চাঁদপুরে বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে তর্কের জেরে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন! -
11/29/2022
চাঁদপুরে বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে তর্কের জেরে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন! -

চাঁদপুরে বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে তর্কের জেরে বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন! -

ঠিকানা অনলাইন : চাঁদপুরে বিশ্বকাপ আর্জেন্টিনার খেলা নিয়ে তর্কের জের ধরে বন্ধুর হাতে খুন হয়েছে আরেক বন্ধু। ঘটনায় .....

হামলার শিকার বিএনপির সাবেক এমপি শাহজাহান মারা গেছেন -
11/28/2022
হামলার শিকার বিএনপির সাবেক এমপি শাহজাহান মারা গেছেন -

হামলার শিকার বিএনপির সাবেক এমপি শাহজাহান মারা গেছেন -

ঠিকানা অনলাইন : পটুয়াখালী-৩ (গলাচিপা-দশমিনা) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও পটুয়াখালী জেলা বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিট.....

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ করুন: প্রধানমন্ত্রী -
11/28/2022
রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ করুন: প্রধানমন্ত্রী -

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ করুন: প্রধানমন্ত্রী -

ঠিকানা অনলাইন : রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ করতে বিশ্বনেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। .....

এসএসসির ফল জানা যাবে যেভাবে -
11/28/2022
এসএসসির ফল জানা যাবে যেভাবে -

এসএসসির ফল জানা যাবে যেভাবে -

ঠিকানা অনলাইন : চলতি বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে আজ। ২৮ নভেম্বর...

এক ভিডিওবার্তায় ফরিদা বলেন, হে স্বাধীন মানুষ, আমাদের সঙ্গে থাকুন এবং আপনার সরকারকে বলুন— এই খুনি ও শিশু হত্যাকারী শাসনকে...
11/28/2022
খামেনির সমালোচনা করে এবার তার ভাগনি গ্রেফতার -

এক ভিডিওবার্তায় ফরিদা বলেন, হে স্বাধীন মানুষ, আমাদের সঙ্গে থাকুন এবং আপনার সরকারকে বলুন— এই খুনি ও শিশু হত্যাকারী শাসনকে সমর্থন দেওয়া বন্ধ করতে। এ শাসনব্যবস্থা কোনো ধর্মীয় নীতির প্রতি অনুগত নয়। তারা বলপ্রয়োগ ও ক্ষমতায় টিকে থাকা ছাড়া কোনো কিছু জানে না।

ঠিকানা অনলাইন : নারীর পোশাকের স্বাধীনতার দাবিতে ইরানে চলা বিক্ষোভে অংশ নেওয়াদের বিরুদ্ধে নিরাপত্তা বাহিনীর ভূম.....

থাইল্যান্ডে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরলেন রওশন এরশাদ -
11/27/2022
থাইল্যান্ডে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরলেন রওশন এরশাদ -

থাইল্যান্ডে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরলেন রওশন এরশাদ -

ঠিকানা অনলাইন : দ্বিতীয় দফায় প্রায় পাঁচ মাস থাইল্যান্ডে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষ....

‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ বিভাগ গঠন স্থগিত -
11/27/2022
‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ বিভাগ গঠন স্থগিত -

‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ বিভাগ গঠন স্থগিত -

ঠিকানা অনলাইন : বৃহত্তর ফরিদপুরের পাঁচটি জেলা নিয়ে ‘পদ্মা’ এবং বৃহত্তর কুমিল্লার তিনটি ও নোয়াখালীর তিনটি করে মোট...

মেয়ের প্রেমিককেই বেঞ্চে বসানোর হুমকি স্পেন কোচের -
11/27/2022
মেয়ের প্রেমিককেই বেঞ্চে বসানোর হুমকি স্পেন কোচের -

মেয়ের প্রেমিককেই বেঞ্চে বসানোর হুমকি স্পেন কোচের -

ঠিকানা অনলাইন : কোস্টারিকাকে ৭-০ উড়িয়ে দেয়ার ম্যাচে জোড়া গোল পেয়েছেন ফেরান তোরেস। অথচ তাকেই বেঞ্চে বসিয়ে দেওয়া.....

বাংলাদেশে রিজার্ভ নিয়ে কোনো সঙ্কট নেই: নিউইয়র্কে সোনালী ব্যাংকের এমডি -
11/26/2022
বাংলাদেশে রিজার্ভ নিয়ে কোনো সঙ্কট নেই: নিউইয়র্কে সোনালী ব্যাংকের এমডি -

বাংলাদেশে রিজার্ভ নিয়ে কোনো সঙ্কট নেই: নিউইয়র্কে সোনালী ব্যাংকের এমডি -

ঠিকানা রিপোর্ট : বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়াত্ব আর্থিক প্রতিষ্ঠান সোনালী ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ব্....

কম্যুনিটির গণমাধ্যমের সঙ্গে এমটিএ চেয়ারের গোলটেবিল বৈঠক -
11/26/2022
কম্যুনিটির গণমাধ্যমের সঙ্গে এমটিএ চেয়ারের গোলটেবিল বৈঠক -

কম্যুনিটির গণমাধ্যমের সঙ্গে এমটিএ চেয়ারের গোলটেবিল বৈঠক -

ঠিকানা রিপোর্ট : প্রতিদিন এমটিএতে যাতায়াত করেন ৫ লাখের অধিক নিউইয়র্কবাসী। তাদের মধ্যে অধিকাংশ যাত্রী বহু সংস্কৃ....

এবার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা -
11/25/2022
এবার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা -

এবার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা -

ঠিকানা অনলাইন : যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেছেন মার্কিন লেখি....

Address

37-17, 74th Street, Suite #2F
New York, NY
11372

Opening Hours

Monday 10am - 6pm
Tuesday 10am - 8pm
Thursday 10am - 6pm
Friday 10am - 6pm
Sunday 10am - 6pm

Telephone

+17184720700

Products

Color & B/W
Full Page Ads
Half Page Ads
Quarter Page Ads
Classified ads
Digital Advertising

Alerts

Be the first to know and let us send you an email when Thikana News posts news and promotions. Your email address will not be used for any other purpose, and you can unsubscribe at any time.

Contact The Business

Send a message to Thikana News:

Videos

Nearby media companies


Comments

Packing & Shipping of Used PERSONAL EFFECTS & HOUSEHOLD GOODS (PEHHG) from...BANGLADESH to USA/CANADA/EUROPE/ AUSTRALIA/INDIA/NEPAL/BHUTAN by ROAD/SEA Transport.......

ASIAN PACKERS & SHIPPERS
International Moving Company

We Handle :
Packing & Shipping
Door to Door Delivery Services
Used Personal Effects & Household Goods
Live Animal

for Assistance Plz. Contact :
C/P : M A Shahin
Cell/Whatsapp : +88 0181 9394 558
Email : [email protected]
Dhaka – Bangladesh
Try explaining how this isn’t 2022's Best Short Film.
বগুড়া জেলা কাহালু উপজেলা হিসাবে কাজ করা ইচ্চা।
https://www.weeklyblitz.net/international/nagorik-tv-uses-canadian-us-soils-for-criminal-activities/
‘Nagorik TV’ a dubious IPTV operating from the US and Canada has clearly violated the Federal blackmail and extortion law 18 U.S.C § 873, while two of the kingpins of this crime-broadcast entity also are involved in numerous forms of criminal activities. It may also be mentioned here that, Nazmus Saquib of ‘Nagorik TV’ is in the United States as an asylum-seeker with false claim, while Tito Rahman, who currently lives in Canada and a cohort of Saquib is accused of having links with Al Qaeda.
নারীর জীবন
নুর এমডি চৌধুরী
হায়রে জীবন নারীর জীবন শতত স্মৃতিরা ঘুরে,
রিক্ত করে সকল অন্তর ছুটে আরেক অন্তরে।
কেবা কেমন জানেনাতো মন কত নিয়মের তান,
ফেলে আসা বাঁধন হৃদয় মাঝে করে শুধু আনচান।
দাদী বলেছে কেউ না যেন অখুশি হয় তোর উপরে,
এ কোল ও কোল দু'কোলি হারাবি কথাটা রাখিস ওরে!
নারীর জনম উথাল-পাথাল অতল সাগরের ঢেউ,
সংসার জীবন তারোধিক উথাল আশ্রয় দেয় না কেউ।
মনের সাধ যে মনেই মরিবে সাধ বলে রবে না কিছু,
কষ্ট যে তোর ঘুরে চারিধার হাটবে পিছু পিছু।
দেবর ননদ শশুর শাশুড়ি আরও রবে কতজন,
নিজকে বিকাবে সকলের তরে করে নিবে আপন।
মমতাময়ী মা'গো তোমায় দেখিনা কতটা কাল,
চেয়েচেয়ে থাকি পথের ধারে স্মৃতিরা উথাল-পাথাল।
খেলার সাথীরা কোথায় জানিনা জানিনা দেখা কি হবে,
কত জনমের বন্ধন যে আজ ভুলিতে বসেছি সবে।
পয়েন্ট অব নো রিটার্ন
আনোয়ার হাকিম

সিলেট থেকে ফিরছিলাম আন্তঃনগর পারাবাত এক্সপ্রেসে। শীতাতপনিয়ন্ত্রিত ট্রেনের কুপে গিয়ে যখন সীট নম্বর মিলাচ্ছিলাম তখন সেখানে বসা তরুনীকে দেখে কেমন যেন চেনা চেনা লাগছিলো। এক একবার ভাবছিলাম ঠিক জায়গায় এসেছি তো? টিকেট ভালোমতো মিলিয়ে দেখছিলাম।চোখ কেবলই ঝাপসা হয়ে যাচ্ছিলো। আর চোখের শাটার কেবলই ঘুরে ঘুরে সেই তরুনীর দিকে যাচ্ছিলো। তরুনীর সেদিকে ভ্রুক্ষেপ নেই। আমি প্রাথমিক জড়তা কাটিয়ে বাংকারে কাঁধ ব্যাগটা রেখে বসে পড়লাম। চার সিটের কুপে আমরা দু’জন। তরুনী বিনোদন ম্যাগাজিন পড়ছে। এখন আর তার মুখ দেখা যাচ্ছে না। কানে ইয়ার পড গুঁজা। হয়ত গান শুনছে। এসির টেম্পারেচার অনেক কুল। এর উপর ফ্যান চলছে। আমার বেশ ঠান্ডাই লাগছে। ফ্যানের সুইচ অফ করে দেওয়ার সাথে সাথেই তরুনী ম্যাগাজিন সরিয়ে একবার ফ্যানের দিকে আরেকবার আমার দিকে বিস্ময় জাগানিয়া চোখ নিয়ে তাকালো। আমি ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে ফ্যান অন করে দিলাম। তরুনী আবার ম্যাগাজিনে ডুবে গেলো।

এরিমধ্যে ট্রেন যাত্রা শুরু করে দিয়েছে। আমার বড্ড অস্বস্তি লাগছে। কিছুপর টিটিই এলেন। পান খেয়ে তার দাঁত আর ঠোঁট পুরোপুরি রক্তিম। সেই লালাভ ছিটা তার সাদা এপ্রোনে ইতস্তত বিক্ষিপ্ত চিহ্ন এঁকে রেখেছে। টিকেট চাইলেন। দেখালাম। বললেন, “আপনি আমার সাথে একটু আসুন”। বললাম, “কেন”? অপমানবোধ পেয়ে বসলো। তরুনী হয়ত মনে করছে আমি ভুয়া টিকেটে জার্নি করছি। বললাম, “যা বলার এখানেই বলেন”। তিনি কিছুটা হতোদ্যম হলেন। আবার খানিকটা বিরক্তও। বললেন, “আপামনি আমাদের বড় স্যারের মেয়ে। বুঝেনই তো ডিসকমফোর্ট ফিল করবেন। আমি আপনাকে এর চেয়ে ভাল জায়গায় বসিয়ে দিচ্ছি”। আমার মাথায় রক্ত চড়ে গেলো। বললাম, “আপনারাই রেলটাকে ডুবিয়েছেন। আর আপনাদের উর্ধতন কর্তৃপক্ষও যাচ্ছেতাই। আচ্ছা এ ট্রেনের নেক্সট স্টপেজ কোথায়”? ঘোড়েল টি টিই ঔৎসুক্য নিয়ে বললো, “কেন, নেমে যাবেন”? আমিও ততোধিক তাচ্ছিল্যের সুরে বললাম, “আপনাকে নামিয়ে দেবো”। স্মার্ট টি টিই টোন ডাউন করে বললো, “আপনার পরিচয়টা”? পরিচয় পেয়ে আদবের সালাম ঠুকে তরুনীকে উদ্দেশ্য করে বললো, “ আপামনি, আমাদের আরেক স্যার। অসুবিধে হবেনা। আমি কফি পাঠিয়ে দিচ্ছি”। তরুনী এবার ম্যাগাজিন সরিয়ে তাকে বললেন, “ইটস ওকে। লিভ ইট। আপনি যান”।

টিটিই চলে গেলো। আমার তখন অপমানবোধ আরো চাড়া দিয়ে উঠলো। মনে হলো টিটিই এত স্পষ্ট করে বলার পরেও এখানে বসে থাকলে তরুনী অন্তত আমাকে লেসু টাইপের কিছু ভাববে। এর চেয়ে অন্যত্র যাওয়াই ভালো। বাংকার থেকে ব্যাগ নামিয়ে কাঁধে চাপাচ্ছি এমন সময় তরুনী ম্যাগাজিন সরিয়ে এয়ার পড খুলে আমার দিকে বিস্ময়ের চোখে তাকিয়ে বললো, “আপনি কি সিরিয়াসলি চলে যাচ্ছেন”? মনে হচ্ছিলো বাংলা সিনেমার গরীব নায়কের মত গলা উঁচিয়ে ডায়ালগ দেই। কিন্তু এটা তো সিনেমার স্যুটিং স্পট না। তাই গলা নামিয়ে বললাম, “আপনিও তো তাই চাইছেন”। তরুনী এবার হেসে দিয়ে বললো, “যেতে হবে না। বসেন। বরং আলাপ করতে করতে যাওয়া যাবে”। আমার রাগ পড়ে গিয়ে উল্টো নিজের উপরই এখন রাগ হচ্ছে। এত সুন্দর ভদ্র মেয়েকে উদ্ধত ভেবে আমিই ভুল বুঝেছিলাম। আসলে সকল পুরুষের পৌরুষের গরিমা এই মেয়েদের জন্যই, আবার সেই মেয়েদের সামনেই তার পৌরুষ পুষি বিড়ালের মত নেতিয়ে কোল আর আঁচল খুঁজে। তরুনীকে এবার ভালো করে দেখলাম। চেহারা ছবি ভালোই। তবে তার ভাবভঙ্গী আর হাসি পৌরুষকে নাচাবার জন্য যথেষ্ট। চোখে এক ধরণের দুষ্টুমির ঝিলিক আছে বুঝা যায়। আমি স্বভাবে লাজুক। মেয়েদের সামনে আরো। আমার কাছে কোন ম্যাগাজিন নেই। পেপারও নেই। ট্রেনে এধরণের কোন হকার পাওয়া যাবে কিনা জানিনা। তরুনী চিপস খাচ্ছে। কতক্ষণ পর ক্যাটারিং থেকে স্ন্যাক্স এলো। তরুনী আরেকটা অর্ডার করলো। আমি অগ্রীম বলে ফেললাম, “আপনার সাথে কেউ আছে কি”?
-- কেন?
-- আরেক প্লেট অর্ডার করলেন যে
-- আপনার জন্য। কোন সমস্যা?
-- না না। আপনি অর্ডার করতে যাবেন কেন? আমার ভদ্রতা।
-- কেন জাত যাবে? পৌরুষে লাগবে?
-- না না। তা ঠিক না।
-- তো? খান। এরপর আপনার পালা। কফি খাওয়াবেন।
-- সিওর।

খেতে খেতে আলাপ চললো। আলাপ বেশ জমেও উঠলো। কথা প্রসঙ্গে জানলাম, তরুনী একজন মডেল। নাম তারান্নুম তানিয়া তানি। কয়েকটি ওয়েব সিরিজেও নাকি কাজ করেছে। আমি তাকে চিনতে পারিনি বলে তার বিস্ময় টের পেলাম। তবে কি সে আমাকে আনকালচারড ভাবছে? এমন সময় তরুনীই প্রশ্ন করে বসলো, “আপনি কি করেন”?
-- চাকরি।
-- বিসিএস?
-- জ্বী
-- কোন ডিপার্টমেন্টে আছেন?
-- প্রশাসনে।

কফি খেতে খেতে আলাপ আরো গাঢ় হলো। ভাবছি এইসব মডেল-ফডেল থেকে চৌদ্দ মেইল দূরে থাকাই ভালো। এদের কোনটা আসল, কোনটা নকল বুঝার সাধ্য কারো নেই। এদের ফ্যান-ফলোয়ার অগণিত। সবাইকে নাকে দড়ি দিয়ে ঘুরায়। স্ক্যান্ডাল এদের সাথে ইনবিল্ট। এরা নিজেরাও ভাড়া করা সাংবাদিক দিয়ে স্ক্যান্ডাল লেখায়। আজ একে ধরে তো কাল ওকে ছাড়ে। কোন ঠিক-ঠিকানা নেই। আসলে সিনে মিডিয়ায় যারা কাজ করে, কি পুরুষ কি মেয়ে, কারো প্রতিই ভাল কোন ইমপ্রেসন আমার নেই। কিছু বদ্ধ উন্মাদ আর লাফাঙ্গার এদের পিছু দৌড়ায় আর লগ্নীকারী বিগশটরা এদেরকে অবসরের বিনোদন সঙ্গী করে। এরা সব সময় হাই মেক আপ করে কৃত্রিম হাসিতে থাকে। আর ঢং করে আংগুর জুসের মত টসটসে কথা বলে। আর দিন শেষে ঘরে ফিরে স্লিপিং পিল খায়, নয়ত ড্রাগ, নয়ত আত্মহত্যার ছক আঁটে। আমার ভাবনার মাঝে তানি আচমকা প্রশ্ন করে বসে, “আপনার অবসর সময় কাটে কি করে”?
-- নিজের যখন যা ইচ্ছে হয় সেভাবেই। আমার হেয়ালি উত্তর।
-- টিভি দেখেন না?
-- একদম না
-- কেন?
-- ভালো লাগেনা। অভ্যেস নেই।
-- কোয়াইট আন ইউজুয়াল। তানির বিস্ময়।
-- মে বি
-- নাটক-সিনেমার খবর রাখেন না?
-- রাখি তো। যখন তারা খবরের শিরোণাম হয়
-- কেমন?
-- কেউ আত্মহত্যা করলে, ডিভোর্স হলে, বিয়ে হলে, সেলিব্রেটিদের বাচ্চাসহ গোপন বিয়ের খবর চাউর হলে----
-- বেছে বেছে নেগেটিভ গুলোই দেখেন?
-- না না। সেরকম হবে কেন?

তরুনী যারপরনাই মনোক্ষুন্ন। মেয়েরা তারিফ চায়। আর মিডিয়ার লোকেরা পাবলিসিটি চায়। আমার আগ্রহ কম দেখে তানি বড়ই বিমর্ষ। আমি কথা ঘুরিয়ে বললাম, “ছোটবেলায় আমারও খুব শখ ছিলো নায়ক হবো”। আমি জানি একথা তানির মনে ধরবে। বললো, “সত্যি? সিরিয়াসলি? নাটকে, ওয়েবে কাজ করবেন”? আমি কিছুটা আগ্রহ দেখানোর ছলে বললাম, “সে সুযোগ আর হলো কই”? “আমি ব্যবস্থা করবো। আপনার পারফেক্ট লুক আছে” তার একথায় আমার শরীরে সুখের নহর বয়ে গেলো। এরি মধ্যে সামিরা বেশ কয়েকবার ফোন দিয়েছে। সামিরা আমার কলিগ। ভাল কলিগ। কলিগের চেয়েও বেশি। তানি সেটা খেয়াল করেছে। পশু-পাখীর ঘাণেন্দ্রিয় শক্তি বেশ প্রখর হয়। মেয়েদের এর চেয়ে অনেক গুণ বেশি থাকে। এদের টেলিপ্যাথি জ্ঞান যেমন প্রখর তেমনি অনুমান বিদ্যা ততোধিক প্রবল। হঠাৎই বলে বসলো, “উনি কে, কয়েকবার রিং দিলেন”?
-- আমার এক কলিগ। আমার পানসে উত্তর।
-- ফিমেল নিশ্চয়
-- কেমন করে বুঝলেন?
-- এ আর এমন কি? খুব কেয়ারিং বলে মনে হলো। তাছাড়া যতবার কথা বলেছেন ততবার আপনার চোখ-মুখের ভাষা দেখেও বুঝা গেছে উনি আপনার জিএফ?
-- আরে নাহ। আমি এখনো পরিপূর্ণ দায়মুক্ত।

একথাতেই তানির চোখ-মুখ স্পার্ক করে উঠলো। সে এবার আগের চেয়ে আরো স্বাভাবিক হলো। প্রসঙ্গ পরিবর্তন করে বললো, “বাসা কোথায়”?
-- উত্তরায়
-- ফ্যামিলিতে কে কে আছেন?
-- কেন, বিয়ের পয়গাম পাঠাবেন নাকি?

এ কথায় তানি প্রাথমিকভাবে ব্যাক ফুটে গেলেও ত্বরিত ফ্রন্টফুটে এসে বললো, “ক্ষতি কি”? এবার আমি ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে গেলাম। বললাম, “লেটস চেঞ্জ দ্য টপিক। আপনি এখন কি কাজ করছেন”? তানি বুক চিতিয়ে বলে গেলো, “একটা ওয়েবে কাজ করছি। আসছে ঈদে দেখতে পারবেন। আর দু’টো পণ্যের মডেলিংয়ে আছি”। বললাম, “আই’ম সো স্যরি। আপনাকে এর আগে দেখিনি”। তানি কি জানি চিন্তা করলো। পরে বললো, “আপনি হোয়াটসঅ্যাপ ইউজ করেন”? বললাম, “করি তো”। কিছুপর হোয়াটসঅ্যাপ ফুঁড়ে একটা শর্ট ভিডিও ক্লিপ এলো। দেখলাম। ক্যামেরায় আর মেক আপে তানিকে আসলেই সুন্দর দেখায়। এভাবেই প্রথমে হোয়াটসঅ্যাপে আর পরে অন্য মাধ্যমেও তানির সাথে আমার আলাপের ডালপালা পত্র পল্লবিত হয়। (চলবে)
নারী ক্রিকেটারদের লাগেজ রহস্য: আমাদের দায়
আনোয়ার হাকিম

রবীন্দ্রনাথ ঠিকই বলেছিলেন, “ আমরা আরম্ভ করি, শেষ করি না; আড়ম্বর করি, কাজ করি না; যাহা অনুষ্ঠান করি তাহা বিশ্বাস করি না; যাহা বিশ্বাস করি তাহা পালন করি না; ভূরি পরিমাণ বাক্যরচনা করিতে পারি, তিল পরিমাণ আত্মত্যাগ করিতে পারি না; আমরা অহংকার দেখাইয়া পরিতৃপ্ত থাকি, যোগ্যতা লাভের চেষ্টা করি না; আমরা সকল কাজেই পরের প্রত্যাশা করি, অথচ পরের ত্রুটি লইয়া আকাশ বিদীর্ণ করিতে থাকি; পরের অনুকরণে আমাদের গর্ব, পরের অনুগ্রহে আমাদের সম্মান, পরের চক্ষে ধূলিনিক্ষেপ করিয়া আমাদের পলিটিক্স এবং নিজের বাকচাতুর্যে নিজের প্রতি ভক্তিবিহ্বল হইয়া উঠাই আমাদের জীবনের প্রধান উদ্দেশ্য”।

আমাদের আজকের সমাজ জীবনে এরুপ চিত্রই ফুটে উঠছে। বিশেষ করে কোন ঘটনা ঘটে গেলে আমরা সবাই তারস্বরে চিৎকার চেচামেচি শুরু করে দেই। একদল গেলো গেলো বলে মাঠ কাঁপিয়ে তুলি। আরেকদল পারলে ঘটনাকে বেমালুম অস্বীকার করি, নয়ত অদ্ভুত সব কারণ উল্লেখ পূর্বক ঘটনাটি বিরুদ্ধ পক্ষ বা কায়েমী স্বার্থান্বেষীদের কর্ম বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করি। আর নয়ত দেখছি, দেখা হচ্ছে, কাউকেও তিল পরিমাণ ছাড় দেওয়া হবেনা ইত্যাদি প্রবোধে প্রাথমিক উত্তেজনা প্রশমিত করার অপচেষ্টা করি। সাধারণ্যে বহুল প্রচলিত যে আমাদের দেশে কোন ঘটনা ঘটলেই সরকার বা সংশ্লিষ্ট দপ্তর-সংস্থা তড়িঘড়ি করে তদন্ত কমিটি গঠন করে এবং ন্যুনতম সময় দিয়ে প্রতিবেদন দিতে বলে। এটা ঘটনার উত্তাপ প্রশমিত করণের ব্র্রিটিশ তরিকা। সরকারও জানে, কমিটিও জানে এত স্বল্প সময়ে আলোচ্য ঘটনার কিনারা করা সম্ভব না। তাই কমিটি আরো সময় চায়, কর্তৃপক্ষও তা মঞ্জুর করে। এইরুপ খেলা একাধিকবার ঘটে থাকে। শেষতক পাবলিক অন্য বিষয় নিয়ে জড়িয়ে পড়ে। সেই তদন্তের ব্যাপারে কারো আর আগ্রহ থাকেনা। পরে এর কি পরিণতি হয় তা সবার কমবেশি জানা।

ঘটনাটি ঘটেছে নারী ফুটবলারদেরকে নিয়ে। তারা সাফ জয়ী। তারা দেশের সম্মান বৃদ্ধি করেছে। সঙ্গত কারণেই তাদের ঘিড়ে বিনোদন প্রত্যাশী পাবলিকের উৎসুক্যের আর শেষ নেই। তাদের একজন খোলা বাসে চড়ে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি হাতে ঘুড়ার ইচ্ছে প্রকাশ করে তা ‘পূরণ হয়ত হবে না মর্মে’ আক্ষেপ প্রকাশ করে ফেসবুকে একটা স্ট্যাটাস দেয়। এরপরেই সবাই নড়েচড়ে বসে। বি আরটিসি’র সুস্থ দ্বিতল বাসের মুন্ডুপাত করা হলো। এর কি কোন বিকল্প ছিলো না? যাকগে সে প্রসংগ।

বিজয়ী নারীরা এলেন, খোলা বাসে আরোহন করলেন, রাজপথ প্রদক্ষিণও করলেন। জনগণের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন। এভাবেই তারা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন কার্যালয়ে গেলেন। সংবাদ সম্মেলন করলেন। সেই সংবাদ সম্মেলন নিয়েও অনেক কথা হয়েছে। মঞ্চের চেয়ার কর্তারা নিজেরাই দখল করে বসে পড়লেন। দলের কোচ আর অধিনায়কের সেখানে বসার সুযোগ হয়নি। কেবলমাত্র সাংবাদিকদের প্রশ্নোত্তরের সুবিধার্থে মঞ্চে সাময়িক আসন পেয়েছিলেন তারা। কর্তারা কেন নিজেদের গলায় মালা পড়লেন, কে তাদের পড়ালেন, কেন পড়ালেন তা জানা হলো না। এ নিয়ে জনতাপ প্রশমনে দলের অধিনায়ককে দিয়ে বিষয়টি নিয়ে আর বেশি নাড়াঘাটা না করার আবেদনও করা হলো। এ পর্যন্ত তবু যোগ-বিয়োগে বিষয়গুলো হজম করার মত ছিলো। কিন্তু গোল বাধে বাফুফে থেকে নারীদের কাছে লাগেজ হস্তান্তরের সময়। অনেকের লাগেজ কাটা ও তছনছ অবস্থায় পাওয়া গেলো। খেলোয়াড়দের কেউ কেউ দাবী করলেন ডলার খোয়া গেছে। এ খবর নেট দুনিয়া ও মিডিয়ায় হাইপ তুললো। সবাই ছিঃ ছিঃ রবে বিমান বন্দরের প্রতি বিষোদগার করতে থাকলো। বিমান ও সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ বিচলিত হয়ে পড়লো এই ভেবে যে, বল এখন তাদের কোর্টে এসে পড়েছে। বিমানবন্দরে যাত্রীদের লাগেজ কাটার কথা অনেক দিন থেকেই সবার কাছে জানা। তার কিছু চিত্র মিডিয়ার কল্যাণে প্রায়ই চ্যানেলগুলোতে ও নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়। তাই বিমান ও সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ উভয়ই তড়িঘড়ি করে তাদের শক্ত অবস্থান সাফ জানিয়ে দিয়ে বললো, তাদের তত্বাবধানে থাকাবস্থায় নারী ফুটবলারদের লাগেজ অক্ষত ছিলো। আর অক্ষত অবস্থাতেই ফুটবল ফেডারেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কাছে লাগেজ হস্তান্তর করা হয়েছে। নিজেদের মাঠে ঠেলে দেওয়া বল তারা চটজলদি হাই ভলি করে বাফুফের গোল মুখে ঠেলে দিলো। চমকের শুরু তখন থেকেই।

বাফুফে এক্ষেত্রে বল নিয়ে খেলতে অনাগ্রহী হয়ে পড়লো। তাদের আচরণ ফিসফিস সুলভ মনে হলো। কেউ ঝেড়ে কাশে না। করোনার কারণে এখন কেউ আগের মত সশব্দে কাশেও না। যদি এতে করোনাক্রান্ত বলে লোকেরা সন্দেহ করে। যদি ধরে বেধে কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়ে দেয়? তাদের পক্ষ থেকে জ্বলন্ত এই অগ্নিতে পানি ঢেলে বলা হলো খোয়া মালামাল পাওয়া না গেলে তারা ক্ষতিপূরণ দিয়ে দেবে। বিমান আর সিভিল এভিয়েশনের বলিষ্ঠ কন্ঠের বিপরীতে বাফুফের পানসে ও মিউ মিউ কন্ঠের প্রেক্ষিতে পাবলিক যা বুঝার বুঝে গেছে। কিন্তু আশ্চর্যজনক এই যে, তারা কোন কমিটি গঠনের ঘোষণা দেয়নি। ক’দিন পরে সংবাদ সম্মেলন করে গর্ব ভরে তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলে বলা হলো ক্ষতি গ্রস্ত নারী ফুটবলারদের দ্বিগুণ ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হয়েছে। বাফুফে সভাপতি এই দানের কৃতিত্ব প্রাথমিক ভাবে নিজে নিলেও পরে বললেন এটি নারী লীগ প্রধান তার ব্যাক্তিগত টাকা থেকে দিয়েছেন। আর বিনয়ে ও ভক্তিতে গদগদ সেই নারী নেত্রী অপার কৃতজ্ঞতায় জানালেন এই অর্থ বাফুফে সভাপতি নিজে ব্যাক্তিগত ভাবে দিয়েছেন। আসলে কে দিয়েছেন, কোথা থেকে দিয়েছেন, কেন দিয়েছেন এগুলো নিয়ে নানা প্রশ্ন থেকেই গেলো। কিন্তু পাবলিকের সেদিকে আগ্রহ নেই। পাবলিকের কথা তদন্ত হলো না কেন? থলের বিড়ালটাকে উদঘাটনের চেষ্টাও করা হলো না কেন? এ প্রশ্নের কোন উত্তর নেই।

ঘটনাবহুল এ দেশে ইতোমধ্যে মরিয়ম মান্নানের মা’র অপহরণ না আত্মগোপন নিয়ে মিডিয়ার মাতামাতি শুরু হয়ে গেছে। ইডেনের নারী নেত্রীদের চুলোচুলির কেচ্ছা-কাহিনী আর নায়িকা বুবলীর সন্তানের পিতৃ পরিচয় কি তা নিয়ে রং-তামাশার সিরিজ প্রতিবেদন বেরোচ্ছে। নারীদের লাগেজ কেলেংকারী যে তিমিরে ছিলো সে তিমিরেই রয়ে গেলো। সর্বত্র হাঁফ ছেড়ে বাঁচার দৃশ্য লক্ষণীয়। লাগেজ কাটার জন্য সর্বজন বিদিত দায় থেকে মুক্তি পেয়ে বিমান ও সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ যেন মান বাঁচাতে সক্ষম হলো। বাফুফে যেন তেন প্রকারে সংবর্ধনার ডামাডোলে নিম্ন মধ্যবিত্ত নারী ক্রিকেটারদের আগেভাগেই ক্ষতিপূরণ দিয়ে ঘটনার যবনিকাপাত করে তাদের লজ্জা ঢাকার একটা ব্যবস্থা করে ফেললেও প্রকৃত ঘটনা কিন্তু অনুদঘাটিতই রয়ে গেলো। এ নিয়ে গসিপ হয়ত আছে কিন্তু ইনভেস্টিগেশন নেই। চুরির মত ধর্তব্য অপরাধের কোন সুরাহা তো দূরের কথা কোন তরফ থেকে কোন অভিযোগও পর্যন্ত করা হলো না। আর এভাবেই প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রিক তষ্কর-লষ্কর চক্র পার পেয়ে যাচ্ছে ও ছত্র ছায়ায় বসে তারা খেলে যাচ্ছে। আর উপরি কাঠামোতে বসে থাকা কর্তারা গায়ে সুগন্ধি স্প্রে করে তাদের ইমেজ ক্লিন রাখার চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

সরকারি প্রতিষ্ঠানের বিশ্বাসযোগ্যতা অনেক আগেই অপসৃত হয়েছে। বাফুফের মত অন্যান্য প্রতিষ্ঠানেও সিন্ডিকেট কালচার জেঁকে বসেছে। ফুটবলের কর্ণধার তাঁর একক অপার ক্যারিসমায় যুগব্যাপী কথার ড্রিবলিংয়ের মাধ্যমে পাবলিককে ডজ দিয়ে যাচ্ছেন। আর ক্রিকেটের কর্ণধার বলে বলে বিশাল বিশাল ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়ে যাচ্ছেন। এদেরকে ঘিড়ে যে পারিষদ তারাও তেলে-মেদে চকচকে কেতাদুরস্ত হয়ে অমিয় বচন দিয়ে বেরাচ্ছেন। কখনো কখনো পাবলিকের মাথা ঘামানোকে তুচ্ছতাচ্ছিল্যও করছেন। এদের দেখার যে কেউ নেই, বলারও যে কেউ নেই তা এরা খুব ভাল জানে। আর এদের বিরুদ্ধে কেউ কিছু করে যে দেখাবে সে হিম্মতও কারো নেই এটাও তারা বেশ ভালো জানে। সর্বত্র এই ছোঁয়াচে সংষ্কৃতির প্রকোপ চলছে।

নারী ফুটবলারদের লাগেজ আদৌ কাটা পড়েছে কিনা তাও নিশ্চিত হওয়ার উপায় নেই। তবে অভিযোগ যে খোদ নারী ফুটবলারদের কাছ থেকেই উঠেছে এটা তো ঠিক। আমাদের নারীরা সাফ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এটা সুবর্ণ স্মরণীয় হয়ে থাকবে নিঃসন্দেহে। দেশে বিদেশে এটা যে ব্যাপক কভারেজ পেয়েছে এবং ভবিষ্যতেও রেফারেন্স হিসেবে বারবার উঠে আসবে এটাও সত্য। পাশাপাশি দেশের গন্ডী পেড়িয়ে দেশি-বিদেশি মিডিয়ার কল্যাণে আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনে লাগেজ কাটার এই ঘটনাও কালো স্পট হয়ে থাকবে।

এখন চলছে নারীদের সম্বর্ধনা, উপহার আর আর্থিক আনুতোষিক বিতরণের উৎসব। ইতোমধ্যেই তাদের জন্য বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থা কোটি কোটি টাকা প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে, হাতেও তুলে দিয়েছে প্রচুর। চ্যানেল আর মিডিয়াগুলো ফলাও করে তাদের সাক্ষাৎকার ছাপাচ্ছে। পারলে তাদের ব্যাক্তিগত নানা প্রসঙ্গ পেরে গ্ল্যামারাস করে তুলার চেষ্টাও করছে তাদেরকে। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে খেলোয়াড়রাও তাদের ব্যাক্তিগত নানাবিধ দাবী দাওয়া তুলে ধরছে। জানি এই ঝড় থামতে বেশি সময় নেবে না। আমরা সকল বিষয়ে প্রথমে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করি, পরে যখন কোন কারণে কেউ আবেগ ধরিয়ে দেয় তখন আবেগের ট্যাংকি খুলে দিয়ে ভাসতে থাকি। পরে বেমালুম ভুলে যেতেও সময় নেই না।

খেলোয়াড়দের দোষ দিয়ে লাভ নেই। এরা নেহায়েতই নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের। এদের চাল-চুলারও ঠিক নেই। অনগ্রসর জনপদ ও পশ্চাৎপদ জনগোষ্ঠী থেকে এরা সংগ্রাম করে উঠে এসেছে। বাফুফে এদের জন্য কি করেছে তা গবেষণা করে দেখতে হবে। এদের নিয়ে বাফুফের বিভিন্ন মেয়াদী পরিকল্পনা থাকার কথা। এখন পর্যন্ত তা জানা যায় নি। হয়ত এখন তারা নড়েচড়ে বসবে। কিন্তু কার্যত কি করবে তা সময়ই বলে দেবে। এদের এই সাফল্য ধরে রাখতে হলে বিভিন্ন মেয়াদের পরিকল্পনা যেমন প্রয়োজন তেমনি বয়স ভিত্তিক খেলোয়াড় বাছাই, প্রশিক্ষণ ও বাছাইকৃত স্কোয়াডের জন্য আর্থিক নিরাপত্তাও দিতে হবে। নাহলে আজকের এই উল্লাস আর আনন্দমুখর চিত্র ফিকে হতে সময় নেবে না বেশি।

অজুহাত, দোষারোপ, দায়িত্বহীনতা আর ধোকাবাজীর এই সংস্কৃতি থেকে আমাদের মুক্তি কবে?
x

Other Media/News Companies in New York (show all)

Weekly Probash Nongor Pechenochnik unikatv TBN24 TBN24 USA Learn Italy Queens Gazette CEOWORLD Magazine Time Television বাংলা পত্রিকা Bangla Patrika Give Me Astoria Εθνικός Κήρυξ / The National Herald Amazin' Clubhouse NYCAviation.com